• বৃহস্পতিবার ২রা ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ ১৯শে মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

    শিরোনাম

    স্বপ্নচাষ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করতে ক্লিক করুন  

    বন্ধুর স্ত্রীর গোসলের ভিডিও ধারণ করে টাকা দাবি, যুবকের ১৩ বছর কারাদণ্ড

    স্বপ্নচাষ প্রতিবেদক, রাজশাহী

    ০১ ডিসেম্বর ২০২২ ৬:৫৮ অপরাহ্ণ

    বন্ধুর স্ত্রীর গোসলের ভিডিও ধারণ করে টাকা দাবি, যুবকের ১৩ বছর কারাদণ্ড

    বগুড়ায় গোপন ক্যামেরা বসিয়ে বন্ধুর স্ত্রীর গোসলের ভিডিও ধারণ করে পাঁচ লাখ টাকা দাবির অপরাধে দেওয়ান আরিফুর রহমান আরিফ (৩৮) নামে এক যুবককে ১৩ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একইসঙ্গে তাকে ১৫ লাখ টাকা জরিমানা, অনাদায়ে আরও দেড় বছরের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে।

    বৃহস্পতিবার ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় রাজশাহী বিভাগীয় সাইবার ট্রাইব্যুনাল আদালতের বিচারক জিয়াউর রহমান এই রায় দেন।

    দণ্ডপ্রাপ্ত দেওয়ান আরিফুর রহমান বগুড়া জেলার সদর থানার উপশহর এলাকার মৃত দেওয়ান আক্তারের ছেলে।

    এসব তথ্য নিশ্চিত করে রাজশাহীর সাইবার ট্রাইব্যুনাল আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) অ্যাডভোকেট ইসমত আরা বেগম বলেন, ২০২০ সালের জুলাই মাসে দেওয়ান আরিফুর রহমান গোপন ক্যামেরা বসিয়ে এক গৃহবধূর গোসলের ভিডিও ধারণ করেন। এরপর সেই ভিডিও দেখিয়ে ৫ লাখ টাকা দাবি করেন। এই ঘটনায় ওই গৃহবধূর স্বামী বগুড়া সদর থানায় দেওয়ান আরিফুর রহমান আরিফের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা দায়ের করেন।

    মামলা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, আসামি আরিফ বাদী শরীফুলের বন্ধু। বন্ধুত্বের সুযোগ নিয়ে বাসায় যাতায়াত। কোনো এক সময় আসামি তার বন্ধুর বাথরুমে গোপন ক্যামারা স্থাপন করেন। ওই ক্যামেরায় বন্ধুর স্ত্রীর গোসলের ভিডিও ধারণ করেন। এরপর বাদীর স্ত্রীর ফেসবুক আইডির মেসেঞ্জারে তা পাঠিয়ে ৫ লাখ টাকা দাবি করেন। বাদীর স্ত্রী লোকলজ্জার ভয়ে তার এক আত্মীয়কে দেওয়ার নাম করে টাকা সংগ্রহ করে আরিফকে ৫ লাখ টাকা দেন।

    এরপরও বাদীর স্ত্রীর কাছে আবারও ৫ লাখ টাকা দাবি করেন আরিফ। এতে উপায়ান্তর না পেয়ে শেষ পর্যন্ত স্বামীকে (বাদীকে) ঘটনাটি খুলে বলেন। বিষয়টি বাদী জানার পর আসামি আরিফকে তার মুঠোফোন ও ফেসবুক থেকে রিমুভ করেন এবং মেসেঞ্জার ডিজেবেল করে দেন, সেইসঙ্গে হোয়াটসঅ্যাপেও নম্বরটি ব্লক করে রাখেন।

    কিন্তু গেলো বছরের ২৬ মার্চ একটি হোয়াটসঅ্যাপ নাম্বার থেকে আরিফ আবারও বাদীকে ফোন করে ৫ লাখ টাকা দাবি করেন এবং ধারণকৃত ভিডিওটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল করার হুমকি ও ভয়ভীতি দেখান।

    পরে বাদী ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের (২০১৮ এর ২২-১, ২৬-১, ২৯-১) তিনটি ধারায় আসামি আরিফের বিরুদ্ধে বগুড়া সদর থানায় মামলা দায়ের করেন। পরে তাকে অভিযুক্ত করে আদালতে চার্জশিট দাখিল করে পুলিশ। আদালতে সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে আসামির বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ সন্দেহাতীতভাবে প্রমাণিত হওয়ায় আজ এই রায় ঘোষণা করা হয়।

    রায়ে আসামিকে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের একটি ধারায় ৫ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড ও ৫ লাখ টাকা জরিমানা অনাদায়ে ৬ মাস বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয়। দ্বিতীয় ধারায় ৫ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড ও ৫ লাখ টাকা জরিমানা অনাদায়ে ৬ মাস বিনাশ্রম কারাদণ্ড এবং তৃতীয় ধারায় ৩ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড ও ৫ লাখ টাকা জরিমানা অনাদায়ে ৬ মাস বিনাশ্রম কারাদণ্ডসহ মোট ১৩ বছরের কারাদণ্ড ও ১৫ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

    জরিমানা অনাদায়ে পৃথক তিন ধারায় ৬ মাস করে মোট ১৮ মাস বিনাশ্রম কারাদণ্ড ভোগ করতে হবে আসামিকে। এই সাজা একসঙ্গে চলবে বলে জানান আইনজীবী ইসমত আরা।

    রাষ্ট্রপক্ষের এই আইনজীবী আরও জানান, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের অপর তিনটি ধারার অপরাধ প্রমাণিত না হওয়ায় আসামিকে ওই ধারাগুলো থেকে বেকসুর খালাস দেওয়া হয়েছে। রায়ের অনুলিপি বগুড়ার চিফ জুডিসিয়াল মেজিস্ট্রেট আদালতে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

    স্বপ্নচাষ/একে

    Facebook Comments Box
    স্বপ্নচাষ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করতে ক্লিক করুন  

    বাংলাদেশ সময়: ৬:৫৮ অপরাহ্ণ | বৃহস্পতিবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২২

    swapnochash24.com |

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০
    ১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
    ১৮১৯২০২১২২২৩২৪
    ২৫২৬২৭২৮  
    advertisement

    সম্পাদক : এনায়েত করিম

    প্রধান কার্যালয় : ৫৩০ (২য় তলা), দড়িখরবোনা, উপশহর মোড়, রাজশাহী-৬২০২
    ফোন : ০১৫৫৮১৪৫৫২৪ email : sopnochas24@gmail.com

    ©- 2023 স্বপ্নচাষ.কম কর্তৃক সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত।