• মঙ্গলবার ৫ই মার্চ, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ ২১শে ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

    শিরোনাম

    স্বপ্নচাষ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করতে ক্লিক করুন  

    রাজশাহী-চাঁপাইনবাবগঞ্জকে পেছনে ফেলে আম উৎপাদনে এগিয়ে নওগাঁ

    স্বপ্নচাষ প্রতিবেদক

    ১১ জুলাই ২০২৩ ৭:৩১ অপরাহ্ণ

    রাজশাহী-চাঁপাইনবাবগঞ্জকে পেছনে ফেলে আম উৎপাদনে এগিয়ে নওগাঁ

    দেশের সিংহভাগ চালের জোগান দেওয়া নওগাঁ জেলা মাত্র এক যুগের ব্যবধানে আম উৎপাদনে নীরব বিপ্লব ঘটিয়েছে। কৃষি জমিতে ধানের সঙ্গে আম চাষ করেও দেশের প্রধান দুই আম উৎপাদনকারী জেলা রাজশাহী ও চাঁপাইনবাবগঞ্জকে পিছনে ফেলে উৎপাদনের শীর্ষে রয়েছে নওগাঁ।

    কৃষি বিভাগের পরিসংখ্যান বিশ্লেষণ করে দেখা গেছে, ‘আমের রাজধানী রাজশাহী না চাঁপাইনবাবগঞ্জ’- এ নিয়ে বিতর্ক চললেও গত কয়েক মৌসুমে ওই দুই জেলায় আমের চাষ কখনো বেড়েছে, কখনো কমেছে। তবে গত এক যুগ ধরে নিরব বিপ্লব ঘটিয়ে উৎপাদনের দিক দিয়ে শুধু রাজশাহীকেই নয়, চাঁপাইনবাবগঞ্জকেও পেছনে ফেলে এগিয়ে গেছে নওগাঁ। যদিও চাঁপাইনবাবগঞ্জের চেয়েও নওগাঁয় আমবাগান কম। তবে রাজশাহীর চেয়ে এখন বাগান বেশি নওগাঁতেই।

    জানা যায়, কাটারিভোগ, কালাজিরা চালসহ উন্নত মানের চালের জন্য নওগাঁ জেলা বিশেষভাবে পরিচিত। ধানচাষনির্ভর এই জেলায় অল্পদিনেই ঘটেছে আমের বিপ্লব।

    রাজশাহী আঞ্চলিক কৃষি কর্মকর্তার কার্যালয় থেকে পাওয়া তথ্য অনুযায়ী, চলতি মৌসুমের মোট উৎপাদনের হিসাব এখনো হয়নি। তবে ২০২১-২২ মৌসুমে চাঁপাইনবাবগঞ্জে ৩ লাখ ১৩ হাজার ৭৩৬ টন ও রাজশাহীতে ২ লাখ ৬ হাজার ১৫৬ টন আম উৎপাদিত হয়। এ দুই জেলাকে ছাড়িয়ে নওগাঁয় উৎপাদন হয় ৩ লাখ ৭০ হাজার টন আম। ওই মৌসুমে চাঁপাইনবাবগঞ্জে ৩৭ হাজার ১৬৫ হেক্টর, রাজশাহীতে ১৮ হাজার ৫১৫ হেক্টর ও নওগাঁয় ২৯ হাজার ৪৭৫ হেক্টর জমিতে আমবাগান ছিল।

    এ বছর রাজশাহীতে ১৯ হাজার ৫৭৮, চাঁপাইনবাবগঞ্জে ৩৭ হাজার ৫৮৮ ও নওগাঁয় বাগান আছে ৩০ হাজার হেক্টর। এবার চাঁপাইনবাবগঞ্জে উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয় সর্বোচ্চ ৪ লাখ ৩৫ হাজার ৮৪৩ টন, রাজশাহীতে ২ লাখ ৫৮ হাজার ৪৫০ এবং নওগাঁয় ৩ লাখ ৭৮ হাজার টন। তবে রাজশাহী ও চাঁপাইনবাবগঞ্জে অনেক বছরের পুরোনো আমগাছগুলোর উৎপাদনক্ষমতা আগের মতো নেই। বিপরীতে জমির পরিমাণ কম হলেও নতুন বাগানে গাছের সংখ্যা বেশি নওগাঁয়। ফলে এই জেলা এবারও উৎপাদনে এগিয়ে থাকবে বলে মনে করছে সংশ্লিষ্টরা।

    কৃষি বিভাগের তথ্য অনুযায়ী, নওগাঁর নিয়ামতপুর, সাপাহার, মান্দা ও পোরশা উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় হাজার হাজার হেক্টর জমিতে ছোট ছোট গাছের আমবাগান গড়ে উঠেছে। বাগানের নতুন নতুন গাছে উৎপাদন বেশি হচ্ছে। ফলে হেক্টরপ্রতি ফলনে এগিয়ে থাকছে নওগাঁ। ২০১৫-১৬ মৌসুমে রাজশাহীতে প্রতি হেক্টরে গড় ফলন ছিল ১০ দশমিক ৬৮ টন এবং চাঁপাইনবাবগঞ্জে ৯ দশমিক ৮১ টন। ওই বছর নওগাঁয় ফলন ছিল ১২ দশমিক ৫২ টন। ধারাবাহিকতা ধরে রেখে ২০২১-২২ মৌসুমেও গড় উৎপাদনে শীর্ষে অবস্থান করে নওগাঁ। রাজশাহীর ১১ দশমিক ১৩, চাঁপাইনবাবগঞ্জের ১০ দশমিক ৬৭ টনের বিপরীতে নওগাঁয় উৎপাদিত হয় ১২ দশমিক ৫৫ টন।

    রাজশাহী বিভাগীয় কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের অতিরিক্ত পরিচালক শামছুল ওয়াদুদ বলেন, নওগাঁয় পরিকল্পিতভাবে উন্নত জাতের আমগাছের বাগান করা হয়েছে। ফলে জমি কম হলেও ছোট ছোট প্রচুর গাছ রয়েছে। এ কারণে উৎপাদনও বেশি হচ্ছে। অন্যদিকে চাঁপাইনবাবগঞ্জ ও রাজশাহীতে বেশির ভাগ বাগানে বড় আকারের গাছ আছে। পুরোনো গাছে উৎপাদন কমে যাওয়া ওই দুই জেলার তুলনায় নওগাঁয় নতুন নতুন গাছে উৎপাদন বেশি হচ্ছে।

    তিনি আরও জানান, চলতি মৌসুমে এই তিন জেলায় প্রায় ৬ হাজার কোটি টাকার আমের বাণিজ্য হতে পাবে। এর মধ্যে নওগাঁ জেলা একাই দুই হাজার কোটি টাকার বাণিজ্য করবে বলে আশা করা হচ্ছে।

    স্বপ্নচাষ/একে

    Facebook Comments Box
    স্বপ্নচাষ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করতে ক্লিক করুন  

    বাংলাদেশ সময়: ৭:৩১ অপরাহ্ণ | মঙ্গলবার, ১১ জুলাই ২০২৩

    swapnochash24.com |

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২১৩১৪১৫
    ১৬১৭১৮১৯২০২১২২
    ২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
    ৩০৩১  
    advertisement

    সম্পাদক : এনায়েত করিম

    প্রধান কার্যালয় : ৫৩০ (২য় তলা), দড়িখরবোনা, উপশহর মোড়, রাজশাহী-৬২০২
    ফোন : ০১৫৫৮১৪৫৫২৪ email : sopnochas24@gmail.com

    ©- 2024 স্বপ্নচাষ.কম কর্তৃক সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত।